প্রচ্ছদ রাজনীতি বিরোধী দল বাম জোটের হরতালে সমর্থন জানালো বিএনপি

বাম জোটের হরতালে সমর্থন জানালো বিএনপি

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম গণতান্ত্রিক জোটের ডাকা অর্ধদিবস হরতালের কর্মসূচিকে নৈতিক সমর্থন জানিয়েছে বিএনপি। শুক্রবার বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকের পর দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই সিদ্ধান্তের কথা জানান। বিকাল ৪টা থেকে দুই ঘন্টা এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে লন্ডন থেকে স্কাইপিতে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান যুক্ত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলসগীর বলেন, বামদলে যারা আছেন তারা আগামী ৭ জুলাই হরতাল আহবান করেছেন। আমরা এই হরতালের প্রতি নৈতিক সমর্থন জানাচ্ছি। সারাদেশের মানুষ এই গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধিতে এ্যাফেক্টেড হয়েছেন। সেই কারণে এটা একটা যৌক্তিক হরতাল বলে আমরা মনে করি। সেই কারনেই এই হরতালে আমরা নীতিগত সমর্থন জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি জাতীয় স্থায়ী কমিটি মনে করে সম্পূর্ণ অযৌক্তিক। শুধূ মাত্র যে দুর্নীতি যে ধাপগুলো আছে বিশেষ করে গ্যাস ও জ্বালানি তেল সংক্রান্ত এসবকে অর্থায়ন করার জন্য মূলত গ্যাসের মূ্ল্য বাড়ানো হয়েছে।

তিনি বলেন, গ্যাসের এই মূল্য বৃদ্ধির ফলে সমগ্র অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে এবং সেটা অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্থ করবে বলেই স্থায়ী কমিটি মনে করে। এতে করে প্রত্যেকটি নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বাড়বে, শিল্পের উৎপাদন খরচ বেড়ে যাবে, সামগ্রিকভাবে অর্থনীতি নেতিবাচন প্রভাব পড়বে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, জনগণের সর্বস্তর থেকে এই গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ হয়েছে। বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দল কর্মসূচি দিয়েছে, নিন্দা ও প্রতিবাদ করেছে। কিন্তু সরকার এটাকে মেনে নেয়নি অর্থাৎ মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেনি।

বিএনপি গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির বিরুদ্ধে আর কোনো কর্মসূচি দেবে কিনা প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমরা কর্মসূচি দিয়েছি। বাম দলের কর্মসূচিতে সমর্থন দিলাম। এরপর আমরা চেষ্টা করবো যদি অন্য কোনো কর্মসূচি দেয়া যায়।

বৈঠকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান উপস্থিত ছিলেন।

না’গঞ্জ জেলা কারাগার পরিদর্শনে কারা মহাপরিদর্শক

নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগার পরিদর্শক করেছেন কারা মহাপরিদর্শক (আইজি প্রিজন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম মোস্তফা কামাল পাশা।
Shares