25 C
Nārāyanganj
শুক্রবার, ডিসেম্বর ৩, ২০২১

বাবাকে দেখতে ১০ কিলোমিটার পায়ে হেঁটে কারাফটকে ছোট্ট মেয়ে

মহিমা বয়স মাত্র ৬ পেরিয়ে ৭ এ পড়েছে। নামের সাথে রয়েছে অসাধারণ মিল। বাবার প্রতি এইটুকু মেয়ের ভালোবাসা দেখে অনেকে হতবাক। ঘটনাটি সোমবার বিকেলের।  আলোকিত নারায়ণগঞ্জ পাঠকদের উদ্দেশ্য ঘটনাটি তুলে ধরা হলো ।

মহিমার বাবা মজিবর  মাদক মামলার আসামি হয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারে হাজতবাস করছেন। বাবাকে না পেয়ে বারবার তার মায়ের কাছে বায়না ধরেছে বাবাকে দেখার জন্য। অনেক দিনে বাড়িতে না আসায় বাবার জন্য প্রায়ই কান্নাকাটি করে মহিমা।

এজন্য মায়ের হাতে তাকে মারধরও খেতে হয়েছে কয়েকবার। তবুও নাছোড় বান্দা সে। বাবার সাথে দেখা করবেই। বাবার প্রতি মেয়ের টান তাকে ঘরে আটকে রাখতে পারেনি। মায়ের কাছে জানতে পারে তার বাবা জেলখানায়  আছে। তাই ১০ কিলোমিটার পায়ে হেঁটে বাবাকে এক নজর দেখার জন্য ফতুল্লার মাহমুদপুর করিম মার্কেট এলাকা থেকে একা একা নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারে ছুটে আসে ছোট্ট মহিমা।

কারাগারের সামনে এসে কীভাবে দেখা করতে হবে তা তো জানে না সে।  উপায় না পেয়ে কাঁদতে থাকে।  তার কান্নায় ভারী হয়ে ওঠে কারাগারের পরিবেশ। একা একা একটা ছোট্ট মেয়ে কারাগারের সামনে কাঁদতে দেখে এগিয়ে আসে কারারক্ষীরা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা কারাগারের ডেপুটি জেলার তানিয়া জামান বলেন, ছোট্ট মহিমাকে জিজ্ঞাসা করতেই হাউমাউ করে কেঁদে ওঠে সে।  বলতে থাকে, সে তার বাবার সঙ্গে দেখা করতে এসেছে। মা তার বাড়িতে নির্যাতন করে বলে জেলখানায় বাবার খোঁজে একা একাই চলে এসেছে। কারা কর্তৃপক্ষ মেয়েটির সাথে কথা বলে তার বাবার সাথে দেখা করিয়ে দেয়।  পরে কর্তৃপক্ষ নিজ দায়িত্বে তাকে বাড়ি পৌঁছে দেয়।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x