30 C
Nārāyanganj
শনিবার, অক্টোবর ১, ২০২২

বন্দর উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

দ্যা বাংলা এক্সপ্রেস ডটকম: জ্বালানী তেলের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি, অসহনীয় লোডশেডিং, গণপরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধি, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উধ্বগতি এবং পুলিশের গুলিতে ছাত্রদল নেতা নূরে আলম ও স্বেচ্ছাসেবকদল নেতা আব্দুর রহিম হত্যার প্রতিবাদে বন্দর উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শনিবার (২৭ আগষ্ট) বিকেল সাড়ে ৩ টায় নগরীর ২৩নং ওয়ার্ডস্থ কবিলের মোড় এলাকায় এই মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি আতাউর রহমান মুকুলের সভাপতিত্বে ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি মোস্তাক আহম্মেদেরে সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, হাজী নুরু উদ্দিন আহম্মেদ, প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি এ্যাড. সাখাওয়াত হোসেন খান, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু, আবুল কাউছার আশা, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি এ্যাড. রফিক আহম্মেদ, যুব বিষয়ক সম্পাদক মনোয়ার হোসেন শোখন, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. আনিছুর রহমান মোল্লা, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড.মতিন, শিশু বিষয়ক সম্পাদক মেজবাহ উদ্দিন স্বপন, এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন বন্দর উপজেলা বিএনপি নেতা কাউন্সিলর সুলতান আহম্মেদ, সাবেক কাউন্সিলর হান্নান সরকার, আজহার হোসেন বুলবুল, আমান উদ্দিন আমান, আল-মামুন সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এ সময়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাজী নুরু উদ্দিন বলেন, এই সরকারের অধিনে আর কোন নির্বাচনে বিএনপি যাবে না।কারন এই সরকারের অধিনে কোন নির্বাচন সুষ্ঠু হয় না।শেখ হাসনিা স্বঘোষিত জাতীয় বৈঈমান।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমার সাথে মুকুল সাবের সাথে কোন বিবেদ নাই। দেশ ও দলের প্রয়োজনে আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ।

প্রধান বক্তা হিসেবে এ্যাড. সাথাওয়াত হোসেন বলেন, সময় এসেছে এই সরকারের বিরুদ্ধে গণ-আন্দোলন গড়ে তোলার। তাই প্রতিটি ওয়ার্ডে নেতাকর্মীদের সাথে জনগণকে আন্দোলনে জাপিয়ে পরতে হবে।

নারায়ণগঞ্জে ভাই বোনের উত্তর-দক্ষিন মেরুর রাজনীতির কারনে আমরা কোন উন্নয়ন দেখতে পারি নাই। আজকে আওয়ামীলীগ যে সমাবেশ করছে সেটা জনগনের জন্য নয় নিজেদের উত্তর-দক্ষিন মেরুর পেশী শক্তি দেখানোর জন্য। তাদের এই সমাবেশে কোনেআওয়ামী লীগ নেতা আসে নাই, তারা সব গামেন্টর্স বন্ধ করে কর্মীদের নিয়ে এসছে।

তিনি আরও বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছে তাতে সরকারের এখনই পদ ত্যাগ করা উচিৎ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এ্যাড. টিপু বলেন, এখন অনেক বড় বড় নেতাও আমাদের হুঙ্কার দেয় বিএনপি নেতাদের নারায়ণগঞ্জ ছাড়া করবে। অথচ তাদের কোন কর্মী পাওয়া যায় না। তিনি শুধু বলে খেলা হবে খেলা হবে অর্থচ শ্লোগান দেয়ার মত ছাত্রলীগ যুবলীগ, শ্রমিক লীগের কেউ নেই।তারা কখনই জনগনের পক্ষে কথা বলে না। তারা দেশের টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করছে। তারা যে কোন সময় দেশ ছেড়ে বিদেশে পালিয়ে যাবে।

সভাপতির বক্তব্যে আতাউর রহমান মুকুল বলেন, অনেকেই ধারণা করেন আমার সাথে সাবেক এমপি ও মহানগর বিএনপির সভাপতি এ্যাড. আবুল কালামের সাথে বিবেদ আছে। আপনাদের পরিষ্কার করে দিতে চাই কালাম ভাই আমার মুরুব্বী, তিনি আমার রাজনৈতিক নেতা এবং পরিবারের সদস্য তার সাথে আমার কোন বিবেদ নাই। তিনি যতদিন রাজনীতি করবেন ততদিন আমি তার নেতৃত্বে রাজনীতি করবো। আর আজকে যে সমাবেশের কথা ছিলো, সেটা হয়নি কারন আমার ভাতিজা আবুল কাউছার আশা দেশের বাইরে ছিলো তাই সমাবেশ স্থগিতকরে মত বিনিময় সভার আয়োজন করেছি।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x