22 C
Nārāyanganj
বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২৩

“সরকার স্বাধীন দেশের গনতন্ত্রকে বিপন্ন করে” মানুষকে পরাধীনতার ধুম্রজালে বন্দি করে রেখেছে: মুকুল

দ্যা বাংলা এক্সপ্রেস ডটকম: নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও বন্দর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকুল বলেন, আমরা স্বাধীন দেশের জাতি হলেও এই অবৈধ সরকার সম্পূর্নভাবে গনতন্ত্রকে বিপন্ন করে পরাধীনতার ধু¤্রজালে আমাদেরকে বন্দি করে রেখেছে।

এখন সরকারের অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে রাজপথে আসলেই মিথ্যা মামলা হামলা দিয়ে হয়রানী করেও ক্ষ্যান্ত হচ্ছে না। রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে গুলি করে পাখির মত মানুষ হত্যা করছে।

বুধবার (১১ জানুয়ারী) ১০ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে ঢাকা বিভাগীয় গণ অবস্থান কর্মসূচি সফল করার উদ্দেশ্যে যোগদান পুর্বক তিনি এসব কথা বলেন।

এসময়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে আতাউর রহমান মুকুল আরও বলেন, বর্তমান সরকারের সময় স্বাধীনতার ৫১ বছর পার হবার পরও আবার মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও গনতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য বিএনপিকে আন্দোলন করতে হচ্ছে রাজপথে নেমে। মুক্তিযুদ্ধ ও চেতনার মূল লক্ষ্য ছিলো গনতন্ত্র। এ সরকার সম্পূর্নভাবে গনতন্ত্রকে বিপন্ন করে ফেলেছে। মানুষের ভোটের অধিকার হরণ ও মৌলিক চাহিদাকে নসাৎ করেছে।

আজকে ১০দফা দাবি আদায়ের জন্য রাজপথে বিএনপি যে আন্দোলন সংগ্রাম করছে, এটা একটি স্বাধীন জাতি হিসেবে প্রতিটি নাগরিকের গণতান্ত্রিক অধিকার।

সেই অধিকার আদায়ের আন্দোলনে অংশ গ্রহন করার অপরাধে  ওরা আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে নেতাকর্মীদের কারাগারে বন্দি করে রাখছে। শুধু তাই নয় ওরা একটি মিথ্যা অপবাদ ছড়াচ্ছে। সেটি হলো, আন্দোলন করতে গেলেই নাকি আমরা জ্বালাও পোড়াও করি। এদেশের মানুষ জানে কারা নাশকতা করে সেটা বিএনপির উপর চাপিয়ে দিচ্ছে। এর জবাব এই দেশের খেটে খাওয়া মানুষের কাঠগড়ায় আপনাদের দিতে হবে। কেউ পার পাবেন না, পালানোর কোন সুযোগ আপনাদের আর দেওয়া হবে না।

বক্তব্য রাখছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও বন্দর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকুল

এর আগে সকাল ১০ টায় মহানগর বিএনপির নেতাকর্মীরা বিভিন্ন ভাবে ঢাকাস্থ ফকিরাপুল এলাকায় জড়ো হতে শুরু করে। পরে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য শেষে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও বন্দর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকুলের নেতৃত্বে ফকিরাপুল ও পল্টন এলাকার প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করেন। এসময়ে নেতাকর্মীরা আতাউর রহমান মুকুলের নেতৃত্বে সরকার বিরোধী শ্লোগান দিতে থাকেন। পরে ঢাকা বিভাগীয় গণ অবস্থান কর্মসূচি সফল করার উদ্দেশ্যে যোগদান করেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে ১০ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে ঢাকা বিভাগীয় গণ অবস্থান কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলো, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর বিএমপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম।

এছাড়াও নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির পক্ষ থেকে গণ অবস্থান কর্মসূচি উপস্থিত ছিলো সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, সাবেক সহ-সভাপতি ফখরুল ইসলাম মজনু, হাজী নুরুউদ্দিন, হাজী ফারুক হোসেন, আয়সা সাত্তার,  সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন, হাজী ইসমাইল, মহানগর বিএনপি নেতা কাউন্সিলর সুলতান আহম্মেদ, আল মামুন, শহীদ মেম্বার, মেজবাহ উদ্দিন স্বপন, স্বপন মাহমুদ,

আনোয়ার মাহমুদ বকুল, নেছার উদ্দিন, ফরিদ আহম্মেদ, রাবেয়া বশ্রি, মহিবুল, আল-হাসান, খোকন, মাসুদ, আনোয়ার হোসেন, জব্বার পাঠান, নাণ্ঠু, স্বপন, শাহ আলম, আরিফুল আলম আক্তার,

মহানগর শ্রমিক দলের সিনিয়র যুগ্ম-আহবায়ক মনির মল্লিক, আশরাফ উদ্দিন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি ফারুক চৌধুরী,সহ-সভাপতি মোস্তাক আহম্মেদ, সাইদুর রহমান, যুগ্ম-সম্পাদক পাপ্পু হোসেন, জান্নাতুল ফেরদাউস রাজীব, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আলম,  জনি সহ মহানগর বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x