শুক্রবার, আগস্ট ২৩, ২০১৯
প্রচ্ছদ আর্ন্তজাতিক রাশিয়া থেকে অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র কিনতে ভারতের চুক্তি

রাশিয়া থেকে অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র কিনতে ভারতের চুক্তি

প্রায় ১ হাজার ৫০০ কোটি রুপি ব্যয়ে রাশিয়ার সঙ্গে অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র চুক্তি করছে ভারত। অত্যাধুনিক আর-২৭ ক্ষেপণাস্ত্রটি কিনতে ইতিমধ্যে রাশিয়ার সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে দেশটি।

মঙ্গলবার রাশিয়ার ফেডারেল সার্ভিস ফর মিলিটারি ও টেকনিক্যাল কো-অপারেশনের গণমাধ্যম শাখা তাস নিউজকে এই তথ্য জানিয়েছে।

রাশিয়ায় নির্মিত আর-২৭ ক্ষেপণাস্ত্রটি যে কোনো আবহাওয়াতে মাঝ আকাশে নিশানায় নিখুঁতভাবে আঘাত হানতে সক্ষম। ভারতীয় বিমানবাহিনীর সুখোই-৩০ এমকেআই যুদ্ধবিমানে ক্ষেপণাস্ত্রটি যুক্ত করা হবে। রাশিয়া থেকে এ ধরণের প্রায় এক হাজার ক্ষেপণাস্ত্র কিনবে ভারত।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, অত্যাধুনিক এ ক্ষেপণাস্ত্রটির দৈর্ঘ্য ৪ মিটার, ব্যাস ০.২৩ মিটার, ডানার পরিসর ০.৭৭ মিটার এবং ওজন ২৫৩ কিলোগ্রাম।২৫ কিলোমিটার উচ্চতা থেকেও ক্ষেপণাস্ত্রটি ছোড়া যায়। দৃষ্টিসীমার বাইরে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত এটি আঘাতহানতে সক্ষম।

১০-আই প্রকল্পের অধীনে রাশিয়া থেকে আর-২৭ ক্ষেপণাস্ত্র কিনছে ভারত।গত ৫০ দিনের মধ্যে এ নিয়ে প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম কেনার লক্ষ্যে সব মিলিয়ে ৭ হাজার ৬০০ কোটি টাকার চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে।আর-২৭ ছাড়াও ইসরাইলের কাছ থেকে স্পাইস-২০০০ ও স্ট্রাম আটাকা এটিজিএম কেনার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছে ভারত।

এদিকে মিয়ানমারকে নিজেদের নৌবাহিনীর বহরে থাকা একটি রাশিয়ান সাবমেরিন হস্তান্তর করতে যাচ্ছে ভারত।

কিলো ক্লাসের এই সাবমেরিনটি খুব সম্ভবত এ বছরের মধ্যেই মিয়ানমারে পাঠাবে ভারত।এটি হস্তান্তর হলে মিয়ানমার নৌবাহিনী এটি প্রশিক্ষণে ব্যবহার করবে বলে জানা গেছে।

সাবমেরিনটি ১৯৮০ সালে রাশিয়া থেকে কিনেছিল ভারত। যদিও বর্তমানে সাবমেরিনটিকে আধুনিকায়ন করার কাজ চলছে।

ধারণা করা হচ্ছে,২০১৯ সাল শেষ হওয়ার আগেই রুশ সাবমেরিনটিকে পুরো আধুনিকায়ন করা হবে এবং মিয়ানমারকে হস্তান্তর করবে ভারত।(আন্তর্জাতিক ডেক্স)

Facebook Comments

সর্বশেষ

স্বাধীনতা মানেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান: বস্ত্র ও পাট...

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক বলেছেন, 'স্বাধীনতা মানেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এমন বিশাল মাপের একজন নেতা এখানে...
Facebook Comments
Shares