প্রচ্ছদ লিড বেসামাল সাখাওয়াতের নিয়ন্ত্রন হীন সমর্থক, একই কায়দায় মণ্ঠু (ছবি সহ)

বেসামাল সাখাওয়াতের নিয়ন্ত্রন হীন সমর্থক, একই কায়দায় মণ্ঠু (ছবি সহ)

মহান বিজয় দিবসে চাষাড়া বিজয়স্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলী দিতে এসে মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাড.শাখাওয়াত হোসেনপন্থী ও জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি পারভেজ মল্লিক এবং দেলোয়ার শাহগংদের হাতে বেদম মারধরের শিকার হলেন যুবদল নেতা মো.শাহীন।

১৬ ডিসেম্বর সকাল প্রায় সাড়ে ১০টায় চাষাড়া বিজয়স্তম্ভে সামনে দাড়ানোকে কেন্দ্র করে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনির সাথে মিছিলে বন্দর থেকে আসা যুবদল নেতা শাহীনের উপর চড়াও হয় শাখাওয়াতপন্থী জাকির খানের আস্থাভাজন পারভেজ মল্লিক ও দেলোয়ার শাহ।

এ সময় যুবদল নেতা শাহীনের উপর হঠাৎ চড়াও হয়ে কিল-ঘুষি দিয়ে ও রাস্তার উপর ফেলে দিয়ে অব্যাহত লাথি দিতে থাকে এবং তার শার্ট ছিড়ে ফেলে দেলোয়ার শাহ।

এদিকে বিজয় দিবস অনুষ্ঠানের বিজয়স্তম্ভে ফুল দিতে এসে শাখাওয়াত পন্থীদের হাতে যুবদল নেতা শাহীনকে মারধর এবং তার গায়ে থাকা শার্ট ছিড়ে ফেলার ঘটনায় উপস্থিত অনেকেই ভালভাবে মেনে নিতে পারেনি।

এর আগে ঠিক একই কায়দায় প্রশাসনের সদস্যর উপর হামলা চালায় তারা।

১৬ ডিসেম্বর সকালে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ইন্সপেক্টর ( অপারেশন ) জয়নাল আবেদীনকে টেনে হিচড়ে তার গায়ে থাকা ইউনিফর্ম ছিড়ে ফেলার চেষ্টা করেন।

পরে পুলিশ সাখাওয়াতপন্থীদের উপর লাঠিচার্জ করতে বাধ্য হয়।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে প্রজন্ম ৭১ নামে একটি সংগঠন মিছিল বের করে এবং সেই মিছিলে মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাড.শাখাওয়াত হোসেনের অনুগামীরা উপস্থিত ছিলেন।

তাদের মিছিলটি ২নং রেলগেইট এলাকায় আসলে পুলিশ তা বাধা দেয়। এ সময় মডেল থানার ইন্সপেক্টর ( অপারেশন ) জয়নাল আবেদীন তাদের ব্যানারটি কেড়ে নিলে পুলিশ তাদের উপর উপর চড়াও হয় সাখাওয়াত সমর্থিতরা। পরে তারা ধাওয়া করলে ইন্সপেক্টর জয়নালের উপর চড়াও হয় এবং তাকে পোষাক টেনে হিছড়ে লাঞ্চিত করে জিয়াগংরা। একপর্যায়ে অতিরিক্ত পুলিশ এসে ওদের মিছিলটি ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

অপরদিকে সকাল সাড়ে ৯টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে সদর মডেল থানার উপপরিদর্শক মো.সাইফুলকে পিটিয়ে সামান্যতম আহত করে জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি মন্টু মেম্বার।

মণ্ঠু মেম্বার সমর্থক

মন্টু মেম্বারের সাথে আগত নেতাকর্মীদের দাবী আমরা লোজকন সমাবেত হয়েছি প্রেসক্লাবের উল্টো পাশে পেট্রোল পাম্পের সামনে।

কিন্তু হঠাৎ এসআই সাইফুল এসে মন্টু মেম্বারসহ সবাইকে লাঠিপেটা করতে থাকে। লাঠিপেটা থেকে বাচতে তারা পুলিশের উপর হামলা করতে বাধ্য হয়।

হামলার শিকার এস আই সাইফুল

জেলা যুবদলের যুগ্ম-সম্পাদক স্বপন

অন্যদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,পুলিশকে আসতে দেখে মন্টু মেম্বারের সাথে থাকা কর্মীরা পুলিশ দেখেই ধর শালঅগো পিটা বলেই হামলা চালায়।

হকার্স মার্কেট আধুনিক বহুতল ভবনে রুপান্তরিত করার দাবিতে বিক্ষোভ

দ্যা বাংলা এক্সপ্রেস ডটকমঃ 'পূর্নবাসন ছাড়া হকার উচ্ছেদ চলবে না। উচ্ছেদের নামে জুলুম, নির্যাতন,গ্রেফতার ও মালামাল লুটপাত বন্ধ কর,করতে হবে। হকার্স মার্কেট...
error: Content is protected !!

Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/thebanglaexpress/public_html/wp-includes/functions.php on line 4609